আনিস খানের বাড়িতে না ঢুকতে পারার কারণ হিসেবে আব্বাস সিদ্দিকির অনুগামীদের দায়ি করলেন ফিরহাদ হাকিম

0
29

আনিস খান এর বাড়িতে গিয়ে সেখানে ঢুকতে দেওয়া হয় না মেয়র কে। এ বার তাঁর ফিরে আসার কারণ হিসেবে আব্বাস সিদ্দিকির অনুগামীদের দায়ী করলেন ফিরহাদ হাকিম। শুক্রবার আনিসের গ্রামে ঢুকতে বাধা দেওয়া হল ফিরহাদ-সহ পঞ্চায়েত মন্ত্রী পুলক রায়কে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের জেরেই হাওড়ার নিহত ছাত্রনেতার বাড়িতে ঢুকতে পারেননি ফিরাদ হাকিম। শনিবার সেই প্রশ্নের জবাব এ ফিরাদ বলেন, ‘‘আব্বাস সিদ্দিকির মিটিং থেকে দু’চারটে চ্যাংড়া ছেলে ফিরছিল। তারাই ওখানে হই হই করছিল। আমি মাঝে মাঝে ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক চ্যানেল দেখি। দেখি, অনেক সময় জঙ্গলে বাঘ ঘুরে বেড়াচ্ছে। তার পাশে কুকুর বা হায়নার দল তাকে দেখে চিৎকার করছে। তার মানে এই নয় যে, বাঘ ভয় পেয়ে গয়েছে। বাঘ তাদের কিছু বলছে না মানে, তাদের ইগনোর করছে। আমিও ওদের ইগনোর করছি।’’

Advertisement

শুক্রবার সকালেই আনিস এর বাড়ি জান কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী এবং বিকেলের দিকে আনিসের পরিবারের সঙ্গে দেখা করার কথা ছিল ফিরহাদ ও পঞ্চায়েত মন্ত্রী পুলক রায়ের।সেই মতোই আনিসের বাড়ির উদ্দেশে রওনা দিয়েছিলেন দুই মন্ত্রী। গ্রামে ঢোকার মুখেই গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন তাঁরা। ফিরহাদের কনভয়ের সামনে এসে দাঁড়ান এলাকাবাসীরা। তৃণমূল বিরোধী স্লোগান দিতেও শোনা যায় তাঁদের। এক বিক্ষোভকারী বলেন, ‘‘আনিসের মৃত্যুর পর ৪২ দিন কেটে গিয়েছে। এত দিন পর মনে পড়ল? আমরা তো ডাকিনি, কেন এসেছেন?’’

আনিস খানের বাবা দাবি করেছেন, চাকরি ও টাকার বিনিময়ে আমাকে কিনতে এসেছিলেন শাসকদলের প্রভাবশালী নেতা ফিরহাদ। এমন দাবির উত্তরে ফিরহাদ বলেছেন, ‘‘কেউ কিছু কিনতে যায়নি। আর আইনে এ ভাবে কিছু কেনা যায় না। আইনত যাদের দোষ প্রমাণিত হবে, তাদের শাস্তি হবে। আইন দেখে, কে অন্যায় করেছে আর কে করেনি। আদালতে কে চাকরি দিল আর কে টাকা দিল, তার বিচার হয় না। এ সব গল্পকথা।’’ তিনি রো বলেছেন, ‘‘আমরা কাউকে টাকা বা চাকরি দিতে যাইনি। কেউ দুর্ঘটনায় মারা গেলে সরকার থেকে মানবিকতার খাতিরে তাদেরকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়। সরকার যে বহু ক্ষেত্রে ক্ষতিপূরণ দেয়, তা অনেকেই জানে। অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়িয়ে সরকারি চাকরি দেওয়া হয়। তা-ও আবার মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত নিয়ে।’’

Advertisement

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে