ওড়িশা সরকারের বদলে বাংলার নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ উদয়পুরের মানুষ

0
61

বাংলা ও ওড়িশার সীমানা লাগোয়া উপকূলেই আছড়ে পড়বে ইয়াস। এই সময় সরকার-প্রশাসন পাশে দাঁড়ালে একটা আলাদা শক্তির সঞ্চার হয়। তবে এখানকার মানুষের অভিযোগ, বিপর্যয় মোকাবিলা নিয়ে রাজনীতির শিকার হচ্ছেন তারা। বরং বাংলার মানুষ অনেক বেশি সুবিধা পাচ্ছেন বলে জানাচ্ছেন তারা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ তারা। ‘দিদি’ ইয়াস মোকাবিলায় অনেক ব্যবস্থা নিয়েছেন বলেই দাবি তাদের।

ইয়াসও তার তাণ্ডবলীলার বেশির ভাগটাই উপকূলে চালাবে। বাংলা-ওড়িশা সীমানায় ইয়াস মোকাবিলায় দেখা গেল দুই চিত্র। ওড়িশার তালসারি এলাকার মানুষের অভিযোগ, কোনও সরকারি সাহায্য তারা পাচ্ছেন না। সেদিক থেকে বাংলা যথেষ্ট লাভবান। স্থানীয় এক বাসিন্দার কথায়, “ওড়িশা সরকার ত্রাণশিবির করেছে বটে! তবে সেখানে ১-২ হাজার মানুষের থাকার ব্যবস্থা হয়েছে। গ্রামে তো ১০ হাজার মানুষ। ২ হাজার মানুষের থাকার ব্যবস্থা করলে কী হবে?” একইসঙ্গে তারা বলছেন, “কোনওরকম খাবারদাবারেরও ব্যবস্থা হয়নি। শুধু “চুড়া গুড়”(গুড় চিড়ে)-এর ব্যবস্থা হয়েছে। তাও যে ত্রাণশিবিরে গিয়ে থাকবে, সে পাবে।” উল্টোদিকে, বাংলার ‘দিদি’ আগলে রেখেছেন তার রাজ্যের মানুষকে। ইয়াস মোকাবিলায় মমতার সরকারের ব্যবস্থায় খুশি তারা।

By : Priyanka

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে