কারোর কাছে ফেলনা তো কারোর কাছে সোনা- বেবহিত ফুল দিয়ে ২ কোটির বিজনেস

0
55

স্বাধীনতার থেকে বড় কোন সুখ নেই। প্রায় প্রত্যেক ব্যক্তিই চায় স্বাধীন ভাবে জীবন যাপন করতে এবং নিজস্ব ব্যবসা দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হতে। সফলতার জন্য কাজের প্রতি আগ্রহ থাকার পাশাপাশি সঠিক ধারণা থাকাটাও খুব জরুরী। বেশি টাকা ইনভেস্ট করে ব্যবসা করাতে একটা ঝুঁকি থেকে যায়। কিন্তু সল্প বিনিয়োগ করে ধীরে ধীরে ব্যবসা বাড়ানোটাই বুদ্ধিমানের।

Advertisement

সঠিক পথে কাজ করলে কম পুঁজিতেও প্রচুর লাভ করা যায় বলে মনে করা হয়। এমনটাই করেছেন “উত্তরপ্রদেশের” ‘কানপুরের’ দুই যুবক। তাদের দৃঢ় ব্যবসায়িক ধারণার কারণে তারা খুব অল্প পুঁজিতে একটি ব্যবসা শুরু করেছিলেন এবং আজ তারা কোটিতে লাভ করছেন। ব্যবহৃত ফুল নদীতে ফেলতে দেখে দুই বন্ধুর মনে একটা আইডিয়া আসে যা তাদের জীবন বদলে দেয়।

ফেলে দেওয়া ফুল গুলো সংগ্রহ করে এক জায়গায় একত্রিত করে শুরু করেছিলেন ব্যবসা। আজ এই কোম্পানির বর্তমান ব্যবসা প্রায় বছরে ২ কোটি টাকা। কোম্পানি (হেল্প আস গ্রিন)-এর প্রতিষ্ঠাতা ‘অঙ্কিত আগরওয়াল’ বলেছিলেন যে, কানপুরের ২৯ টি মন্দির থেকে প্রতিদিন প্রায় ৮০০ কেজি ফুল ফেলে দেওয়া হয় গঙ্গায়। পঁচে যাওয়া ফুলে জলের দূষণও বৃদ্ধি পায়।

পরবর্তীতে তারা সব ফুল সংগ্রহ করে দূষণ রোধের পাশাপাশি নিজেদের ব্যাবসাও শুরু করেন। ফেলে দেওয়া ফুল দিয়ে আধুনিক পদ্ধতিতে ‘ধুপকাটি’ ও ‘জৈব কৃমি’ কম্পোস্টে রূপান্তর করে আয় করছেন প্রচুর অর্থ। এই ব্যাবসায় খরচও কম লাভও অনেক বেশি। তাদের সঠিক চিন্তা ধারা ও প্রচেষ্টা দিয়ে আজ তারা আলাদা কিছু করতে সক্ষম হয়েছে।

Advertisement

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে