কেন হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে ছবি পোস্ট করায় গ্রেপ্তার করল পুলিশ

0
57

Ritika Roy, DNI: আজকাল মানুষ সামাজিক থেকে সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশি অ্যাক্টিভ। এখন বিভিন্ন নেটওয়ারিং সাইটে জিনিসপত্র বিক্রি শুরু হয়েছে। পোশাক-আশাক থেকে শুরু করে ইলেকট্রনিক জিনিস, মুদি সামগ্রী, কসমেটিক ইত্যাদি। এখন ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ ও কেনা বেচা চলে। কিন্তু এই কেনা বেচার মধ্যেও ঘটে চলেছে অপরাধ। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়া এ আজকাল অস্ত্র বিক্রি হচ্ছে! শুনে গায়ে কাঁটা দিয়ে ওঠার মত।


পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অনেকদিন ধরেই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে একটি ছবি বারবার চোখে পড়ছিল। একটি ছেলে মুখ অদৃশ্য , পা থেকে গলা অবদি দেখা যাচ্ছে। দুটো হাতে অস্ত্র ধরে দাড়িয়ে আছে। সেই ছবিটি গ্রুপে দেওয়াই কাল হয়। পুলিসের নজরে আসায় গ্রেপ্তার হয় ওই দুষ্কৃতী। মানিকতলা থানার পুলিশের কাছে এসেছে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। পুলিসের দাবি, হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ খুলে অস্ত্র কেনা বেচা করছিলো দুষ্কৃতীরা। হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে পোশাক ও হাতঘড়ি দেখে চিহ্নিত করা হয় এক দুষ্কৃতিকে। তার কাছ থেকে উদ্ধার হয় আগ্নেয়াস্ত্র। দুষ্কৃতী কিষান জেশগরাকে গ্রেপ্তার করেন। এবং তাকে আজকে আদালতে পেশ করা হয়। অস্ত্রের খোঁজ করতেই ধৃত জানায়, সেটা রাখা হয়েছে খুনে অভিযুক্ত ভাটপাড়ার এক দুষ্কৃতীর বাড়িতে। সেখানে তল্লাশি চালিয়ে অবশ্য অস্ত্র উদ্ধার হয়নি। পলাতক খুনে অভিযুক্ত ওই দুষ্কৃতীও।


পুলিশ জানিয়েছে, এটির পিছনে একটি বড়ো চক্র কাজ করছে। দুষ্কৃতীরা অস্ত্র পাচার ও বিক্রির জন্য সোশ্যাল মিডিয়াকে কাজে লাগাচ্ছে। মানিকতলা থানার পুলিশ ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে