তামিলভূমিতে ‘মমতা আম্মা’, আলোচনা দেশের রাজনীতিতে

0
95



প্রিয়াঙ্কা পাল, DNI: এবার দক্ষিণেও বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম চোখে পড়লো। তামিনাড়ুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে দেওয়াল লিখন করে তাকে তাকে ‘আম্মা’ রূপে তুলে ধরা হয়েছে। আসলে এইরকম দেওয়াল লিখন চোখে পড়েছে তামিলভূমি নামক একটি জায়গায়। ওখানে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সহ দেওয়াল লিখনের ছবি ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে যা নিয়ে রাজনৈতিক জল্পনা তুঙ্গে।

বঙ্গ রাজনীতির মঞ্চ ছেড়ে এবার গোটা দেশের রাজনীতিতে ছড়িয়ে পড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস। আর সর্বস্তরে ছড়িয়ে পড়ার জন্যে হাতিয়ার হিসেবে বেছে নিয়েছে একুশে জুলাইয়ের দিনটিকে। ইতিমধ্যেই জানা গিয়েছে আগামী ২১ জুলাই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাষণ ভার্চুয়ালি শোনানো হবে দিল্লিতে। ত্রিপুরা-পাঞ্জাব-সহ অন্য কয়েকটি রাজ্যেও তা শোনানোর পরিকল্পনা রয়েছে এরাজ্যের শাসক দলের। তাই এবার শুধু দিল্লি নয়, দক্ষিণের রাজনৈতিক পটভূমিতেও দেখা গেল জোড়াফুল।

জয়ললিতার ভূমি তামিলনাড়ুতে এবার দেখা গেল মমতার নামে দেওয়াল লিখন। বিশেষ করে দেখা হয়েছে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি ও পাশে লেখা ‘মমতা আম্মা’। মূলত আগামী একুশে জুলাইয়ের উদ্দেশ্যেই একপ্রকার চিন্তাভাবনা করেই এটিকে তুলে ধরা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। এই বছরের বিধানসভা নির্বাচনে একটি ঐতিহাসিক জয়ের পর সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসকে জাতীয় স্তরে তুলে ধরতে চেয়েই এই প্রকার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সেই লক্ষ্যেই তামিলভূমে এই প্রচার বলে মনে করা হচ্ছে।

তামিল রাজনীতিতে ‘আম্মা’ কথাটার যেনো একটা বাড়তি গুরুত্ব আছে। প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতাও ‘আম্মা’ নামেই পরিচিত ছিলেন। তার মৃত্যুর পর সেই জায়গা অসম্পূর্ণ রয়েছে, এমনকি তার দল ও হেরে গিয়েছে। তবে এবার প্রশ্ন উঠছে ‘আম্মা’র শূন্যস্থান দখলের উদ্দেশ্যেই রাজনৈতিক ময়দানে নামছে এরাজ্যের শাসকদল?

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে