পেগসাস স্পাইওয়্যার : আধুনিক মোবাইল ব্যবহারকারীদের নতুন চিন্তা

0
50

ধীরাজ দাস:DNI; বিশ্বজুড়ে এখন একটি নাম ভীষন চর্চায়। পেগসাস স্পাইওয়্যার। সমগ্র বিশ্বের বেশকিছু দেশের প্রভাবশালী ব্যক্তিদের, হাতের মোবাইলফোনে আড়ি পেতেছে এই স্পাইওয়্যার।

এখন পর্যন্ত ২ জন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী, ৩জন বিরোধী নেতা, প্রায় ৪০ জনের বেশি সাংবাদিকের, বহু শিল্পপতি, নিরাপত্তারক্ষী, আমলা প্রভৃতি আক্রান্ত হন এই স্পাইওয়্যারে।

মূলত, মোবাইল ব্যবহারকারীর ফোনে একটি ওয়েবসাইটের লিংক দেওয়া হয়। আর, এই লিংকে ক্লিক করলেই এই ‘পেগাসাস’ ফোনে ইনস্টল হয়ে যায়। এছাড়াও হোয়াটসঅ্যাপ কল অথবা ভিডিও কলের মাধ্যমেও এইটি মোবাইল ব্যবহারকারীর মোবাইলে প্রবেশ করানো যায়।

সংবাদপত্র দি গার্ডিয়ান সহ মোট ১৬ টি সংবাদমাধ্যম মিলে একটি তদন্ত করেন যার নাম ‘পেগসাস প্রজেক্ট’।

ইজরায়েলের সংস্থা এনএসও-র তৈরি এই পেগাসাস। বিভিন্ন দেশের মানবাধিকার কর্মী, সাংবাদিক, নেতা-মন্ত্রীদের ফোনে আড়ি পেতেছে। ফলে, তাদের কল ডিটেলস, হোয়াটসঅ্যাপ ভয়েস নোট প্রভৃতি সমস্ত তথ্যে চলে যাবে অন্যের হাতে। তারা থাকবে ২৪ ঘন্টা নজরদারির মধ্যে। মূলত কতৃকবাদী দেশের সরকার এইটি ব্যবহার করছে, ফোনে আড়ি পাতা এবং ২৪ ঘন্টা নজরদারির জন্য।

তদন্ত অনুসারে, এই স্পাইওয়্যার ব্যবহারকারী দেশগুলি হল, বাহরাইন, ভারত, আজারবাইজান কাজাখস্তান, মেক্সিকো, হাঙ্গেরি, রুয়ান্ডা,মরোক্কো, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত।

কিছু রিপোর্ট সামনে আসতেই, বিরোধীরা অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছেন সরকারের দিকে। যদিও সরকার কতৃক এটিকে নাকচ করে দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে অভিযোগ ভিত্তিহীন। সরকার কতৃক কাউর ফোনে আড়ি পাতলে তার জন্যে বিশেষ অনুমতি লাগে।

এখন, এমত খবর প্রকাশে আসতেই, আধুনিক মোবাইল ব্যবহার করি দের চিন্তা অনেক খানি বেড়ে গেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে