ভর সন্ধ্যায় হাওড়ায় ডাকাতি, এলকাবাসীর মধ্যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি

0
63

গতকাল ভর সন্ধ্যায় হাওড়ার ব্যাটরা থানা এলাকার গয়লা পাড়ায় হানা দেয় দুষ্কৃতীরা। গৃহকর্ত্রীকে বেঁধে রেখে প্রায় ৩৫ লক্ষ্য টাকার সোনার গয়না ও নগদ সহ বাড়ির দামি জিনিসপত্র নিয়ে চম্পট দেয় দৃষ্কৃতী দল।

গৃহকর্ত্রী শান্তনা পাল জানিয়েছেন, হটাৎ করেই দুজন লোক তার বাড়িতে ঢুকে পড়ে। তারপরই আপনারা কে বা কারা জিজ্ঞেস করতেই ব্যাগ থেকে টেপ বের করে পিছন দিক থেকে তার মুখে প্লাস্টিক কাগজ ঢুকিয়ে বেঁধে দেওয়া হয়। এরপর তার হাত-পা বাঁধার সময় দুষ্কৃতীরা জানায় “আমরা খুব গরিব তাই চুরি, ডাকাতি করা ছাড়া আমাদের কোনও উপায় নেই।”

প্রায় এক ঘন্টা ধরে ঘরের ভিতর একের পর এক আলমারি ভেঙে টাকা গয়না লুঠ করে দুষ্কৃতীরা। অভিযোগ, এক দুষ্কৃতী যখন এই ঘটনা ঘটাচ্ছে তখন আরেকজন বাড়ির পোষা কুকুরকে গায়ে মাথায় হাত বুলিয়ে শান্ত রাখার চেষ্টা করে। যাওয়ার সময় মহিলার হাত খুলে দিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা।

কোনও রকমে নিজের মোবাইল থেকে নিজের স্বামীকে ফোন করে ঘটনাটি জানান শান্তনাদেবী। বিপদের আভাস পেয়েই বাড়ির বাকি সদস্যরা বাড়ি আসেন। শান্তনাদেবীর ছেলে সম্রাট পাল জানিয়েছেন, তার বাবা তাকে ফোন করলে তিনি ঘরে ফিরে মাকে বাঁধা অবস্থায় দেখতে পান। গোটা ঘর লন্ডভন্ড। সকাল থেকে বেশিরভাগ সময়টাই সারাদিন ঘরে কেউ থাকতো না, এই খবর দুষ্কৃতীরা জানতো বলেই মনে করছেন সম্রাট পাল।

গোটা ঘটনাটি হাওড়া সিটি পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ তদন্ত করছে। ফিঙ্গার প্রিন্ট বিশেষজ্ঞদেরও খবর দেওয়া হয়েছে। শান্তনাদেবী আহত হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে