রাজ্যসভাপতির সমালোচনায় বিজেপি বিধায়ক, তৃণমূলে যোগদান ?

0
56

সুকান্ত মজুমদার বিজেপি রাজ্যসভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার 24 ঘন্টার মধ্যেই তাঁর বিরুদ্ধে কার্যত বিদ্রোহ ঘোষণা করলেন উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জের বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী। রায়গঞ্জের বিধায়ক প্রশ্ন তোলেন সুকান্ত মজুমদারের যোগ্যতা নিয়েই। উনি বলেন, সুকান্ত বাবু বয়সে নবীন। তাঁর পক্ষে গোটা রাজ্যে বিজেপির দায়িত্ব সামলানো কঠিন। তিনি আরো বলেন, আরো বয়স্ক কোনো রাজনৈতিক নেতাকে দলের দায়িত্বে আনলে ভাল হত।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিজেপির 2021 বিধানসভায় পরাজিত হওয়ার পরে গতকাল বিজেপির রাজ্য নেতৃত্বে বদল আনা হয়। রাজ্য সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয় বালুরঘাটের সাংসদ, সংঘ ঘনিষ্ট সুকান্ত মজুমদারকে। আর তার চব্বিশ ঘন্টার মধ্যেই বেসুরো হন বিজেপি বিধায়ক। তিনি বলেন, সভাপতি বদলের ঘোষণার আগে পর্যন্ত রাজ্য নেতৃত্ব এই বিষয়ে কোনো কিছুই জানত না। বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর ব্যাপারটি সবার নজরে আসে।

বিজেপি বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণীর বারবার দলের বিরুদ্ধে সরব হওয়ার পেছনে অন্য রাজনৈতিক তাৎপর্য খুঁজে পাচ্ছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে পরাজয়ের পর থেকেই রাজ্য বিজেপির ভাঙন অব্যাহত। এই পরিস্থিতিতে কিছুদিন আগেই বিজেপি বিধায়ককে দেখা গিয়েছিল দলীয় সাংসদ এবং প্রাক্তন মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরীর বিরুদ্ধে সরব হতে। আর এবার খোদ রাজ্য সভাপতির যোগ্যতাকেই প্রশ্নের মুখে ফেললেন তিনি। কিছুদিন আগে বাবুল সুপ্রিয় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার পরেও দলের সমালোচনাতে মুখর হয়েছিলেন তিনি।

বিভিন্ন সময়েই দলের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন রায়গঞ্জের বিধায়ক। সম্প্রতি তিনি বলেন দলের কোনো কর্মী অপমানিত হলে, দলেরই দায়িত্ব সেদিকে খেয়াল রাখার।যাঁরা দল ছাড়ছেন অপমানিত হয়েই দল ছাড়ছেন। সুতরাং এই অবস্থায় ওয়াকিবহাল মহল নতুন রাজনৈতিক সমীকরণের আভাস পাচ্ছেন।রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে কৃষ্ণ কল্যাণীর তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দান শুধু মাত্র সময়ের অপেক্ষা।

News By Gourab

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে