রাজ্যের ইস্যু নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাঠানো ৯টি চিঠিরই জবাব দেননি প্রধানমন্ত্রী, অসন্তোষ প্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীর

0
47

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী পদে দায়িত্ব গ্রহণ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ২৪ জুন পর্যন্ত বাংলার নানা সমস্যা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ৯টি চিঠি দিয়েছেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী এবং তার দপ্তর থেকে কোনও জবাব মেলেনি। এই পরিপ্রেক্ষিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থায় কোনও মুখ্যমন্ত্রী চিঠি দিলে অবশ্যই তার জবাব দেওয়া উচিত। মোদি সরকার রাজ্যকে ঠিক কতটা অবহেলার চোখে দেখে এই ঘটনায় তার প্রমাণ বলে মনে করে নবান্ন।

৫ মে শপথ নিয়েই মুখ্যমন্ত্রী প্রথম চিঠি লেখেন কোভিড ভ্যাকসিন, রেমডিসিভির, টোসিলিজুমাব, অক্সিজেন ও সিলিন্ডার সাপ্লাইয়ের দাবিতে, কিন্তু অপরদিক থেকে কোনো উত্তর মেলেনি। পরদিনের চিঠির বিষয়বস্তু ছিল পিএম কিষানের বকেয়া টাকা মেটানোর দাবি নিয়ে। সেক্ষেত্রেও কেন্দ্র কোনো জবাব না দিলেও কিছু কৃষককে কিস্তির টাকা দিয়েছে।

৭ মে’র অক্সিজেন সাপ্লাইয়ের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেওয়া হয়। তার দু’দিন পরের চিঠি দেওয়া হয় করোনা রোগীদের জন্য জরুরি মেডিকেল সাপ্লাইয়ের উপর কর প্রত্যাহারের বিষয়ে।

১২ মে ভ্যাকসিন আমদানির দাবিতে চিঠি লেখা হয়। ১৪ মে কিছু হাসপাতালে পিএসএ অক্সিজেন প্লান্ট তৈরির সহায়তা চেয়ে মোদিকে চিঠি লেখা হয়। তবে বাংলাকে ৭০টি ইউনিট বরাদ্দ করা হলেও এখনও পর্যন্ত পাওয়া গিয়েছে মাত্র ৪টি।

মমতা ৩১ মে দুটি বিষয়ে চিঠি লেখেন। একটি ছিল আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিল্লিতে হঠাৎ তলব করা নিয়ে ও দ্বিতীয়াংশে ছিল ২৮ মে কলাইকুন্ডায় প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানানোর বিস্তারিত বিবরণ।

মমতা চান ছাত্রছাত্রী, ব্যবসায়ী, শিল্পপতি প্রভৃতি বহু নাগরিক জরুরি প্রয়োজনে যাতে বিদেশে যেতে পারে তাই কোভ্যাকসিনের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিলাভের জন্য মোদি সরকার দ্রুত এবং আন্তরিকভাবে উদ্যোগী হোক। তাই কোভ্যাকসিন বিদেশে মান্যতা না পাওয়ার সমস্যা কাটানোর দাবিতে ২৪ জুন চিঠি লেখেন মুখ্যমন্ত্রী। এখনও পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে লেখা এটাই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শেষ চিঠি। তবে এরমধ্যে একটি চিঠিরও জবাব এখনও মেলেনি বলে দাবি নবান্নের।

Priyanka Pal

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে