১ অথবা ২ নয়! বড় ৫ ভুল নিয়েও সুপারহিট আল্লু অর্জুনের পুষ্পা

0
27628

পুষ্পা জ্বরে কাবু গোটা দেশ। ডিসেম্বর মাসের ১৭ তারিখে মুক্তি পেয়েছিল আল্লু অর্জুনের ছবি ‘পুষ্পা: দ্য রাইজিং স্টার’। দক্ষিণী সিনেমাটি ইতিমধ্যেই বক্সঅফিসে ৪০০ কোটির ব্যবসা করে ভারতের সর্বোচ্চ মুনাফাকারী সিনেমা হয়ে উঠেছে। এই চূড়ান্ত হিট সিনেমা দেশজুড়ে মোট ৫ টি ভাষা অর্থাৎ হিন্দি, তামিল, তেলেগু, কন্নড় ও মালায়ালামে মুক্তি পেয়েছে। তবে এত জনপ্রিয় একটি সিনেমাতেও কিন্তু বেশ কিছু খুঁত রয়ে গিয়েছিল, যা বেশীরভাগ দর্শক‌ই ধরতে পারেনি। জানুন সেগুলো কি কি।

Advertisement

•অ্যাকশন সিকোয়েন্সে ভরপুর সিনেমার প্রথম অংশে দেখানো হয়েছে পুলিশের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য চন্দনকাঠের মাফিয়া পুষ্পা একটি ট্রাক গর্তের মধ্যে ফেলে দিয়ে লুকিয়ে দেয়। সিনেমাটি দেখার সময় দৃশ্যটি অত্যন্ত ভালো লাগলেও বাস্তবতার দিক থেকে দৃশ্যটি বড়ই বেমানান। রাস্তার পাশে ওত বড় গর্তে একটি ট্রাক লুকিয়ে দিলেও পুলিশ খুঁজে পেল না, এমনটা বড়ই অবাস্তব।

•আর‌ও একটি অ্যাকশন দৃশ্যে দেখা গিয়েছে পুষ্পা চলন্ত ট্রাকের বনেটের উপর দিয়ে হাঁটছে। কিন্তু সেই ট্রাকের ভিতর কোনো চালক ছিল না। তাহলে প্রশ্নটা হল ওই ট্রাকটি চালাচ্ছিল কে?

•সিনেমার মাঝামাঝি অংশে একটি জায়গায় দেখানো হয়েছে পুষ্পা পুলিশের হাত থেকে লাল চন্দনের কাঠ বাঁচানোর জন্য তা নদীর জলে ফেলে দিচ্ছে। দিব্যি সেই সমস্ত বহুমূল্যবান কাঠ জলে ভেসে চলে যাচ্ছে। কিন্তু, বাস্তবতা হল এই যে লালচন্দন এমন একটি কাঠ যার একটি ছোট টুকরোও জলের মধ্যে ডুবে যায়। তাহলে ওত বড় লালচন্দন গাছের গুঁড়ি কি করে জলে ভেসে গেল?

•সিনেমার একটি দৃশ্যে দেখানো হয়েছে পুষ্পা শ্রীনুর শ্যালক মোগলিসকে জলে ফেলে খুন করেছে এবং সেখান থেকেই জলে মোটরসাইকেল চালাতে শুরু করেছে। এখানে প্রশ্ন উঠছে নদীতে ভর্তি বড় বড় পাথরের মাঝে কি করে পুষ্পা মোটরসাইকেল চালাচ্ছিল?

•ছবির অন্য একটি দৃশ্যে দেখানো হয়েছে পুষ্পার বন্ধু কেশব গাড়ির দরজা অব্দি খুলতে জানে না। কিন্তু পরমুহুর্তে আবার একটি দৃশ্যে দেখানো হয়েছে কেশব লাল মারুতি গাড়ি চালাচ্ছে। যে সামান্য একটি গাড়ির দরজা খুলতে পারে না, তার পক্ষে কি এত তাড়াতাড়ি গাড়ি চালাতে পারা সম্ভব? মন দিয়ে সিনেমাটি দেখলেই এমন সব ভুল খুব সহজেই চোখে পড়ে যাচ্ছে।

Advertisement

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে