“যাদবপুরের ডন আমার বাবা”, দিদি নং ১ য়ের মঞ্চে অকপটে স্বীকার সায়নীর

0
100

অভিনয় ছেড়ে রাজনীতিতে পা রেখেছেন সায়নী ঘোষ। আসানসোল থেকে ভোটেও দাঁড়িয়েছিলেন, কিন্তু জিততে পারেননি। তবে অন‍্য হেরে যাওয়া তারকাদের মতো রাজনীতির ময়দান ছেড়ে পালাননি সায়নী। পরিশ্রমের পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি। যুব তৃণমূলের সভাপতি পদে উত্তরণ ঘটেছে তাঁর।

অভিনয় রাজনীতি নিয়ে খুব‌ই ব‍্যস্ত মানুষ সায়নী। এর মাঝেই সোশ‍্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে অভিনেত্রীর। ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’এ রচনা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়ের সঙ্গে খেলতে এসেছিলেন তিনি। সম্ভবত এটি একটি পুরনো ভিডিও। বাবা সমর ঘোষের সঙ্গে খেলতে এসেছিলেন তিনি।

Advertisement

সেই পর্বেরই একটি অংশের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সেখানে মেয়েকে ছাপিয়ে বাবা নজর কেড়েছেন বেশি। কালো পাঞ্জাবি, গলায় একাধিক সোনার চেন, হাতে আংটি আর চোখে সানগ্লাস। এক্কেবারে বাপ্পি লাহিড়ীর লুকে দেখা গিয়েছে অভিনেত্রীর বাবাকে।

সায়নী মজা করে নিজের বাবাকে ‘যাদবপুরের ডন’ বলে পরিচয় দিয়েছেন। আসলে তাঁর বাবার রিয়েল এস্টেটের ব‍্যবসা। তাই সামাজিক ক্ষেত্রে পরিচিতি বেশি। কেউ কোনো বিপদে পড়লেই ছুটে যান সমর বাবুর কাছে। সেই সূত্র টেনেই সায়নীর মজা, “কেউ কোনো বিপদে পড়লে যাদবপুরে এসে বলবেন, সমর ঘোষ পাঠিয়েছে। তারপর দেখবেন।”

সায়নী এও জানান, মাঝে মাঝেই নাকি বাবা তাঁকে বলেন তিনি জীবনে কী করেছেন। তাঁর থেকে বাবার জমি জায়গার পরিমাণ বেশি। দিদি নাম্বার ওয়ানে এসে সায়নীর কিছু গোপন কথাও ফাঁস করে দেন তাঁর বাবা। বাড়িতে রাগারাগি করে বেরিয়ে গিয়েছিলেন সায়নী। তিন বছর আলাদা ছিলেন। কিন্তু একবারও দেখতে যাননি বাবা। শুধু একটি ঘড়ি পাঠিয়েছিলেন, যাতে লেখা ছিল ‘তোমার শুভ সময় আসুক’।

Advertisement

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে