Asansol: বাড়ির নীচে বাঙ্কারে চলছিল বেআইনি অস্ত্র কারখানা,পুলিশের জালে তিন।

0
47

এবার আসানসোলে মিলল বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্র তৈরি কারখানার হদিশ।কুলটির ডিসেরগড়ের পর এবার পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোলে আজাদ নগর নয়াবস্তি এলাকার একটি বাড়িতে মিলল এই অস্ত্র কারখানার হদিশ।ঘরের নীচে রীতিমতো বাঙ্কার বানিয়ে চলত বেআইনি অস্ত্র তৈরির এই কারখানাটি। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সোমবার দুপুরে হীরাপুর থানার পুলিশ ওই বাড়িটিতে তল্লাশি চালিয়ে বেশ কিছু আগ্নেয়াস্ত্র ও আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির যন্ত্রাংশ উদ্ধার করে। ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, গোপন সূত্র মারফত খবর পেয়ে সোমবার দুপুর দেড়টা নাগাদ আজাদ নগর এলাকায় অভিযান চালানো হয়। ওই বস্তির ঠিক মাঝখানের দিকে একটি সরু গলিতে বেশ কয়েকটি টালির বাড়ির একটিতে আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির কারখানাটি পাওয়া যায়। ঘরে মেঝে কেটে বাঙ্কার বনিয়ে চলত আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির কারখানা। বাইরে থেকে দখলে সেফটিক ট্যাঙ্ক মনে হয় নীচে যে অস্ত্র তৈরি হত তা বোঝার কোন উপায় নেই।

আসানসোল দূর্গাপুর পুলিশের ডিসিপি অভিষেক মোদির নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী এলাকায় অভিযান চালায়। অভিযানে ঘরের নীচের বাঙ্কার থেকে তিনটি সম্পূর্ন তৈরি ৭.৬৫ এমএম পিস্তল ম্যাগাজিন সহ, ১০ টি অসপূর্ণ পিস্তল, ১৭ টি ম্যগাজিন সহ তিনটি কার্তুজ উদ্ধার হয়েছে বলে পুলিশের দাবী। ঘটনায় বিহার মুঙ্গেরের বাসিন্দা মহম্মদ ফিরোজ, মহম্মদ তনভির এবং বাড়ির মালিকের স্ত্রী ফরজানা খাতুনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বাড়ির মালিক মহম্মদ জাভেদ হুসেন এখনো পলাতক।

ওই বাড়িতে যে আগ্নেয়াস্ত্র তৈরির কারখানা চলছিল তা জানতে পেরে হতবাক স্থানীয়রা। তারা কেউ ঘুণাক্ষরেও টের পায় নি অস্ত্র তৈরির কারখানার কথা।কত দিন ধরে এই কারখানা চলছে সেবিষয়ে এখনো স্পষ্ট করে কিছু জানাতে পারছে না পুলিশ।

News By Tania

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে