Bangladesh: কুমিল্লায় পূজোমন্ডপে কোরান রেখেছিল এক মুসলিম যুবক, সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে মূল ষড়যন্ত্রকারীকে চিহ্নিত করল বাংলাদেশ পুলিশ

0
65

কুমিল্লার পূজোমণ্ডপ থেকে পবিত্র কোরান উদ্ধার করা হয়। আর তারপরেই অভিযোগ ওঠে কোরান অবমাননার। সেই থেকেই ওপারবাংলায় যাবতীয় সাম্প্রদায়িক হিংসা, অশান্তির সূত্রপাত। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে বাংলাদেশ পুলিশ এবার চিহ্নিত করল মূলচক্রীকে।

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ইকবাল হোসেন (৩৫) নামে এক ব্যাক্তিকে কুমিল্লায় দূর্গামণ্ডপে কোরান রাখায় চিহ্নিত করল বাংলাদেশ পুলিশ। বাংলাদেশ সংবাদ মাধ্যমকে পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে এক ব্যাক্তি কুমিল্লা শহরের নানুয়া দিঘীর পারের এক মসজিদ থেকে কোরান নিয়ে বেরিয়ে আসতে দেখা যায়। মসজিদ থেকে বেরিয়ে সে সোজা চলে যায় দূর্গামণ্ডপে। সেখানে মণ্ডপের বাইরে থাকা হনু্মানজির মূর্তির কোলে গদা সরিয়ে কোরান শরিফ রেখে বেরিয়ে যায় সে। আর এই ঘটনার পরেই কোরান শরিফের অবমাননার বিভিন্ন পোষ্ট শোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতে থাকে তারপরেই শুরু হয় সমস্ত অশান্তি।

ইকবালের বাড়ি কুমিল্লার সুজানগরে। নানুয়া দিঘীর মসজিদে তার নিত্যদিন যাতায়াত ছিল। ইকবালের মা আমিনা বেগম জানান তার ছেলে মাদকাসক্ত ও মানসিক সমস্যাও রয়েছে। এই নিয়ে বাড়িতে নিত্যদিন অশান্তি লেগে থাকত। পুলিশের তরফেও জানানো হয়েছে ইকবাল ভবঘুরে। তার খোঁজে এখনো তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। তবে ইকবালের সঙ্গে কোন রাজনৈতিক দল বা মৌলবাদী গোষ্ঠীর যোগাযোগ আছে কিনা সেবিষয়ে খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

বাংলাদেশে হিংসা ও অশান্তি ছড়ানোর ঘটনায় ইতিমধ্যে ১৯ অক্টোবর পর্যন্ত ৭২ টি মামলা দায়ের করে বাংলাদেশ পুলিশ। ৪৫০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকেই ছাড়া হবে না বলে জানিয়েছে পুলিশ। ইকবালের সঙ্গে জড়িত আরো ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

News By Tania

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে