Crime News: দিল্লি থেকে উদ্ধার সুন্দরবন থেকে পাচার হওয়া দুই নাবালিকা সহ পাঁচ জন, গ্রেফতার এক পাচারকারী।

0
50

কাজের টোপ দিয়ে সুন্দরবন থেকে দিল্লিতে পাচার করা হয়েছিল দুই নাবালিকা সহ তিন তরুণীকে। সুন্দরবনের ঢোলাহাট থানার পুলিশের তৎপরতায় উদ্ধার করা হল পাঁচ জনকেই। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে সঞ্জু হালদার নামে এক পাচারকারীকেও।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৭ অক্টোবর ঢোলাহাট থানায় এক গৃহবধূ অভিযোগ করেন তাকে কাজ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে দিল্লিতে পাচার করে দেওয়া হয় কিন্তু সে সেখান থেকে পালিয়ে গ্রামে চলে আসে। পাচারের ঘটনায় জড়িত ঢোলাহাটের শঙ্করপুরের বাসিন্দা জিন্নাতুন বিবি ও তার স্বামী বাবলু হোসেন মোল্লা এবং নুর আলম নামে তিন জনের নামে ওই গৃহবধূ থানায় অভিযোগ দায়ের করে।

ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ ১৮ অক্টোবর জিন্নাতুন ও বাবলুকে গ্রেফতার করে। তদন্তকারী অফিসারেরা জানিয়েছেন, জেরায় জিন্নাতুন জানায় গ্রামের আরও পাঁচ জন মেয়েকে মাথাপিছু ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে দিল্লিতে পাচার করা হয়। তাকে এই কাজে সাহায্য করত বাবলু। গ্রামের মেয়েদের বিভিন্ন কাজের সুযোগ দেখিয়ে টোপ দিত জিন্নাতুন তারপর সেই মেয়েদের দিল্লিতে নুর আলমের কাছে নিয়ে যেত সে। সেখান থেকে মেয়েগুলিকে প্রথমে পরিচারিকা পরে দেহ ব্যবসার কাজে নামানোর পরিকল্পনা ছিল তাদের।

জিন্নাতুন ও বাবলুকে জেরা করে দিল্লিতে দুই জন নাবালিকা সহ পাঁচ জনকে পাচার করে দেওয়ার কথা জানতে পেরে ঢোলাহাট থানার সাব-ইনস্পেক্টর শুভেন্দু দাসের নেতৃত্বে একটি দল দিল্লিতে যায়।সেখানে সারিতা বিহার থানা ও শক্তি বাহিনীর সাহায্য নিয়ে পুলিশ শনিবার মদনপুর খাদর এলাকার এক গোপন ডেরায় রেইড করে পাঁচ জনকে উদ্ধার করে ও একজন পাচারকারীকে গ্রেফতার করে। ধৃত সঞ্জু হালদার নুর আলমের সঙ্গী। অভিযুক্ত সঞ্জু কলকাতার লেক থানার বাসিন্দা। অভিযুক্তকে জেরা করা করে নুর আলমের খোঁজ চালাচ্ছে তদন্তকারী অফিসারেরা। এছাড়াও এই ঘটনায় আর কারা জড়িত তার তদন্তে তদন্তকারী অফিসারেরা।

News By Tania

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে