‘কিছু না করেই ২০-৩০ কোটি চাইছেন নবাগত অভিনেতারা’, নেপোটিজম প্রমোট করে এখন ফ্যাসাদে করণ জোহর

0
15

নবাগত অভিনেতা-অভিনেত্রীদের পারিশ্রমিক ক্রমাগত লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েই চলেছে, যার জেরে বেজায় বিরক্ত বলিউড পরিচালক-প্রযোজক। করণের কথায়, বিশেষ করে অতিমারীর পর থেকেই তারকাদের মধ্যে এই পারিশ্রমিক বাড়ানোর প্রবণতা বেড়েছে।

Advertisement

করণের অভিজ্ঞতার ঝুলি থেকে বলেন এর নেপথ্যে এখন তারকারা একটাই অজুহাত দেন, “অতিমারীতে আগের ছবি ভাল ব্যবসা করতে পারেনি কিংবা একটাও ছবি রিলিজ করেনি, তাই এখন পারিশ্রমিক বাড়াতে হচ্ছে।” সেই প্রেক্ষিতেই করণ বলছেন, “ভাল স্টারকাস্ট হলে ব্যবসার খাতিরে তবুও মেনে নেওয়া যায়, কিন্তু নবাগতরা কীভাবে এত বেশি পারিশ্রমিক চেয়ে বসেন?” প্রশ্ন তুলে ভ্রু উঁচিয়েছেন ধর্মা প্রোডাকশনের কর্তা।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে করণ জানান যে, অভিনেতাদের ম্যানেজমেন্ট সংস্থার তরফে ডিজিট্যাল রিলিজের কথা মাথায় ঢুকিয়ে পুষিয়ে নেওয়ার পরামর্শও দেওয়া হচ্ছে। যা কিনা চূড়ান্ত বিভ্রান্তিকর! করণের সুরে সুর মিলিয়েছেন জোয়া আখতারও (Zoya Akhtar)। জোয়া আর‌ও একটি পয়েন্ট যোগ করে বলেন, অভিনেতাদের পাশাপাশি কলাকুশলীরাও নিজেদের দাম বাড়াচ্ছেন ক্রমাগত।

আরেক বলিউড পরিচালক রিমা কাগতি ব্যাখ্যা করলেন, কেন মাঝেমধ্যেই ছবির বাজেট কাটছাঁট করতে হয় কিংবা তারকাদের সঙ্গে এই বিষয়ে দামদর করতে হয়। তাঁর অভিযোগ, কিছুতেই নাকি ইন্ডাস্ট্রির অভিনেতারা সমস্যাটা বোঝেন না। এখানেই করণ জোহর যোগ করলেন, “বক্স অফিসে ব্যবসার খাতিরে মেগাস্টারদের মোটা পারিশ্রমিক দেওয়া যায়, কিন্তু নবাগত, যাঁরা এযাবৎকাল কিছুই করে উঠতে পারেননি, তাঁদের এমন হাবভাব দেখলে তো অবাক লাগে!”

করণ জোহরের সংযোজন, “যাঁরা এখনও ইন্ডাস্ট্রিতে সেভাবে নিজেকে প্রমাণই করতে পারেননি, তাঁরাও কিনা ২০-৩০ কোটি চেয়ে বসেন। কোনও কারণ ছাড়াই। তারপর মুখের সামনে ওঁদের রিপোর্ট কার্ডটা দেখিয়ে ওদের মনে করিয়ে দিতে হয় যে, দেখো তোমার আগের সিনেমা বক্স অফিস কীভাবে ব্যবসা শুরু করেছিল!”

এর পাশাপাশি বলিউড পরিচালক-প্রযোজক এও বলেন যে, “আমি ওঁদের থেকে টিমের কলাকুশলীদের বেশি পারিশ্রমিক দেব, যাঁরা আদতেও এত কষ্ট করে গোটা সিনেমাটা বানান। আমি ভাবি, কেন কিছু অভিনেতাদের আমি ১৫ কোটি টাকা দিই, আর এডিটরদের ৫৫ লক্ষ করে।”

প্রসঙ্গত, বিগত কয়েক বছরে বেশ ক’জন স্টার-কিডদের ইন্ডাস্ট্রিতে লঞ্চ করেছেন করণ জোহর। ২০১২ সালে করণ জোহর, ২০১৯ সালে অনন্যা পাণ্ডে এবং ২০১৮ সালে জাহ্নবী কাপুর। সঞ্জয় কাপুরের মেয়ে সানায়াকেও লঞ্চ করছেন তিনি।

Advertisement

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে