Kolkata:গড়িয়াহাট জোড়া খুনে ভিকির দুই সঙ্গীকে জেরায় উঠে আসছে নতুন তথ্য।

0
51

গড়িয়াহাটের কাকুলিয়া রোডের বাড়িতে জোড়া খুন কান্ডে মিঠূ হালদারকে গ্রেফতার করার পর, তাকে জেরা করে পাথর প্রতিমা থেকে পুলিশ দুজনকে গ্রেফতার করে। আর তাদের জেরা করেই পুলিশের হাতে উঠে আসছে নতুন তথ্য। যদিও এখনো অধরা মূল অভিযুক্ত ভিকি হালদার। হন্যে হয়ে তার খোঁজ চালাচ্ছে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দারা।

১৮ অক্টোবর গড়িয়াহাটের কাকুলিয়া রোডের বাড়িতে খুন হন কর্পোরেট কর্তা সুবীর চাকী ও তার গাড়ির চালক রবীন মণ্ডল। খুনের চার দিনের মাথায় বুধবার মিঠু হালদার নামে ওই বাড়ির পরিচারিকাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারপরে জেরায় একের পর এক তথ্য প্রকাশ করেন মিঠু। জেরায় মিঠু জানান খুন এবং লুঠের জন্য ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে ৩ জন লোককে ঠিক করেন তিনি। মিঠুকে জেরা করেই ডায়মন্ড হারবারের পাথর প্রতিমা থেকে শুক্রবার জাহির গাজি ও বাপি মণ্ডল নামে দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। আর তাদের জেরা করেই নতুন তথ্য উঠে আসছে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দাদের হাতে।

জেরায় বাপি মণ্ডল ও জাহির গাজি পুলিশকে জানান বাড়ির জিনিসপত্র সরাবার কাজের জন্য কাকুলিয়া রোডের বাড়িতে তাদের নিয়ে যায় ভিকি। ভিকি বাড়িতে ঢুকেই তিন তলায় চলে যায়। চিলেকোঠায় ছিলেন সুবীরবাবুর চালক রবীন মণ্ডল। তাকে খুন করে দোতলায় নেমে আসে ভিকি।সেখানে সুবীরবাবু মুখ চেপে ধরেন একজন তার হাত পা চেপে ধরেন বাকি দুজন।তারপরেই তাকে খুন করে ভিকি। খুনের পরে চলে অবাধ লুঠ।বাপি ও জাহির পুলিশকে জেরায় জানায় খুনের কোন পরিকল্পনার কথা তারা জানত না।ঘটনাস্থলে পৌছে ভিকির খুন করায় কোন উপায় ছিল না বলে তারা তাকে সাহায্য করে। খুন করে তারা তিনজন ট্রেন ধরে পালায়।তিনজনকে জেরার পরেও এখনো সম্পূর্ন ধোঁয়াশা কাটেনি গোয়েন্দাদের। ভিকিকে ধরতে পারলেই সব রহস্যের সমাধান হবে বিশ্বাস গোয়েন্দাদের।

পুলিশ জানিয়েছে ফার্ন রোডের যে সাইটে ভিকি নিরাপত্তারক্ষীর কাজ করত। সেখানে অন্যান্য কর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা গেছে খুনের দিন ভিকির সঙ্গে দেখা করে এক অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি। সেও এই ঘটনায় কোনভাবে জড়িত কিনা তারই খোঁজ চালাচ্ছে তদন্তকারী গোয়েন্দারা।এদিকে বারবার পুলিশের হাত ফসকে পালাচ্ছে ভিকি। কোন জায়গায় এক রাতের বেশি থাকছে না সে। ভিকিকে দ্রুত ধরতে মরিয়া গোয়েন্দারা।

News By Tania

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে