Low pressure: জোড়া ঘূর্ণাবর্তের জের, যে যে জেলায় সতর্কতা জারী নবান্নের

0
40



বাংলায় এবার জোড়া ঘূর্ণাবর্ত আছড়ে পড়ার আশঙ্কা। নিম্নচাপের ফলে প্রায় সারা কোলকাতা জলের তলায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে দুই মেদিনীপুরে। তারওপর বঙ্গোপসাগরে ফের নিম্নচাপের আশঙ্কা। রবিবার থেকে ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারী করেছে নবান্ন। দক্ষিন ২৪ পরগনা ও দুই মেদিনীপুরে ভারী বৃষ্টির ও হালকা ঝোড়ো হাওয়ার সম্ভাবনা। এছাড়াও বাঁকুড়া, পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রামেও ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়া দফতর সূত্রের খবর একটি ঘূর্ণাবর্তটি আসবে ২৬ সেপ্টেম্বর যার অভিমুখ উড়িষ্যা-বাংলা এবং দ্বিতীয় ঘূর্ণাবর্তটি আরও বেশি শক্তি নিয়ে ২৮ সেপ্টেম্বর আছড়ে পড়বে বাংলায়। দুটি ঘূর্ণাবর্তই আসবে দক্ষিন চিন সাগর থেকে। যেগুলি শক্তি বাড়িয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিনত হবে।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে আগামী রবিবার ও শনিবার থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনায় দক্ষিন ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর জেলায় হলুদ সতর্কতা জারী করা হয়েছে। তবে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে আপাতত কোন ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। ২৮ তারিখ থেকে দ্বিতীয় ঘূর্ণাবর্তের প্রভাব সবচেয়ে বেশি পড়তে পারে বাংলায়। বাঁকুড়া, পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রামেও হতে পারে ভারী বৃষ্টি। দক্ষিনবঙ্গের সব জেলাতেই বিক্ষিপ্তভাবে বজ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। যার জন্য শনিবার থেকে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে মাছ ধরতে যেতে নিষেধ করেছে আবহাওয়া দফতর।

সম্প্রতি নিম্নচাপের জেড়ে কোলকাতার বেশিরভাগ জায়গায়ই জলের তলায়। জমা জলে সাধারন মানুষের হয়রানি যেমন হচ্ছে তেমনই মৃত্যুও হয়েছে অনেকের। চাষের জমিগুলি জলের তলায় থাকায় ফসলের প্রচুর ক্ষতি হয়েছে, বাঁধ ভেঙেছে অনেক জায়গায়, বহু মানুষ বাড়ি ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছে ত্রাণ শিবিরগুলিতে। এমন অবস্থায় জোড়া ঘূর্ণাবর্ত মানুষের মনে আতঙ্ক আরও কয়েকগুন বাড়িয়ে তুলেছে।

News by Tania

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে