Noise polution affect your health; সারাক্ষণ হেডফোনে গান শোনেন, অকালে মৃত্যুকে ডেকে আনছেন না তো?

0
18
Noise polution affect your health; সারাক্ষণ হেডফোনে গান শোনেন, অকালে মৃত্যুকে ডেকে আনছেন না তো?

Ritika Roy, DNI: ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন বলছে, সাধারণ মানুষের জীবনে খুবই ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলে শব্দদূষণ। অকালেই মানুষ প্রাণ হারাতে পারেন। কলকারখানা আছে এমন জায়গা, হাইওয়ে, এয়ারপোর্ট সংলঘ্ন এলাকা, রেল স্টেশন লাগোয়া এলাকায় আওয়াজ হয় সবচেয়ে বেশি। এমনকী, টিভির ভলিউম বাড়িয়ে দিলে, জোরে গান শুনলেও হতে পারে সমস্যা। কী কী শারীরিক সমস্যা হতে পারে জেনে নিন, জেনে নিন সমাধানও –

১. শ্রবণশক্তি কমে যেতে পেতে পারে। কানে কম শুনতে শুরু করেন অনেকেই।
২. শারীরিক সমস্যা শুরু হয়, যেমন – রক্তচাপ বেড়ে যেতে পারে, মাথা ব্যথা হতে পারে, শ্বাসকষ্ট হতে পারে, পালস রেট বাড়তে পারে অনায়াসে। গ্যাসট্রিটিস, কোলাইটিস ও হার্ট অ্যাটাকও হতে পারে। বেশি আওয়াজের জন্য হারাতে পারেন প্রাণও।
৩. মানুষের ব্যবহারের বদল হতে পরে। বেশি শব্দের কারণে অনেক বেশি খিটখিটে হয়ে যেতে পারে মানুষ।
৪. বেশি আওয়াজের মধ্যে সারাক্ষণ থাকলে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটতে পারে। ঘুম গাঢ় হতে চায় না।
৫. রক্তচাপে সরাসরি প্রভাব ফেলে শব্দদূষণ। নানা ধরনের হৃদয়জনিত সমস্যা তৈরি হতে পারে।

কীভাবে বাঁচবেন শব্দদূষণ থেকে? হেড ফোনের ব্যবহার কম করা। আস্তে কথা বলা, অল্প আওয়াজে টিভি দেখার অভ্যাস করতে হবে। যে সব জায়গায় অতিরিক্ত আওয়াজ হয়, সেখান থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে নিতে হবে। তাও যদি সম্ভব না হয়, কানে তুলে গোঁজার অভ্যাস চালু করতে হবে। শব্দদূষণ থেকে বাঁচতে সচেতনতা গড়ে তুলুন। নিজে সচেতন হন, অপরকেও সচেতন করে তুলুন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে