Uttar dinajpur : রায়গঞ্জে শুটআউটে রাজ্য পুলিশের এএসআই সহ গুলিবিদ্ধ তিন ভাইবোন, মৃত-১।অভিযুক্তের তীর ২ বিএসএফ কর্মীর দিকে।

0
75



সোমবার সন্ধ্যে ৮ টায় রায়গঞ্জের দেবীনগর এলাকার সুকান্ত মোড়ে আচমকা গুলি চলায় দুষ্কৃতিরা। ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হন একই পরিবারের তিনজন। গুলিবিদ্ধদের রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হলে সেখানে ১ জন মহিলাকে মৃত বলে ঘোষনা করা হয়। বাকি গুরুতর আহত ২ জনের চিকিৎসা চলছে। ঘটনায় অভিযুক্তদের দুজন বিএসএফ কর্মী। বাড়ির সামনে দুষ্কৃতিদের আচমকা এই হামলায় উত্তপ্ত গোটা এলাকায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ও স্থানীদের আতঙ্ক কাটাতে রায়গঞ্জ থানার তরফ থেকে ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর মৃত মহিলার নাম দেবী সান্যাল (৩৭)। ঘটনায় আহত রূপা অধিকারী ও তার দাদা সুজয়কৃষ্ণ মজুমদার। গুলিবিদ্ধ তিন জন ভাই বোন। দাদাকে বাঁচাতেই গুলিবিদ্ধ হন দুই বোন। জানা গিয়েছে সুজয়কৃষ্ণ মজুমদার পেশায় পুলিশ কর্মী। ঘটনাটি ঘটে তার পৈতৃক বাড়ির সামনে। বাবা নিখিলকুমার মজুমদারের আয়া চন্দনা সরকার জানান সন্ধ্যায় কয়েক জন বাড়িতে আসেন। তাদের সঙ্গে গোলমাল হয়। সব ঘটনাই ঘটে বাড়ির সামনের রাস্তায়। পরে তারা চলে গেলে সুজয়বাবুরা বাড়িতে ঢোকেন। তারপরে আবার কয়েকজন ফিরে এসে চেঁচামেচি শুরু করে তখন সুজয়বাবুরা আবার বেরোন। তারপরেই ঘর থেকে গুলির আওয়াজ শুনতে পেয়ে বাইরে বেরিয়ে দেখেন তারা তিন জনই রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছেন।
সুজয়কৃষ্ণ শিলিগুড়ি পুলিশের এএসআই। প্রথমে সন্দেহ করা হয় তাঁর সঙ্গে কোন শত্রুতার জেরেই এই হামলা। কিন্তু পরে পুলিশের অনুমান ভাড়াটে বাড়িওয়ালার বিবাদের জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার সকালে ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে জয়শ্রী দাস নামে এক মহিলাকে গ্রেফতার করে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের অনুমান ২ জন বিএসএফ কর্মী সহ মোট ৫ জন শুটাআউটের ঘটনায় জড়িত। তাদের মধ্যে ঘটনার মূল চক্রীর নাম শীতল রায়। এই মূহুর্তে ফেরার ৫ জনই। তাদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। গুলি চালানোর ঘটনায় ভারাটে-বাড়িওয়ালা বিবাদের সাথে সাথে উঠে আসছে পরকীয়া তথ্যও। দুটি তথ্যই খতিয়ে দেখছে পুলিশ। পূজোর মরশুমে এরম ঘটনায় আতঙ্কে রায়গঞ্জবাসী।

News By Tania

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে