WBCHSE: বিতর্কের মধ্যেই, আচমকাই অপসারিত উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস

0
73


Priyanka Pal, DNI: উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল ঘিরে বিতর্কের জের। অপসারিত উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের (West Bengal Council of Higher Secondary Education) সভাপতি মহুয়া দাস। তাঁর জায়গায় দায়িত্ব পাচ্ছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য।

চলতি বছরে করোনা আবহে করে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা স্থগিত হয়ে যায়। বিকল্প মূল্যায়ন পদ্ধতিতে ফল প্রকাশ হওয়ায় এ বছর কোনও মেধাতালিকা ছিল না। তবে সর্বোচ্চ নম্বর জানায় সংসদ। আর তা বলতে গিয়েই সভানেত্রী মহুয়া দাস বলেছিলেন, “সর্বোচ্চ নম্বর ৪৯৯। পরিসংখ্যান যতটা দেখেছি, তাতে এই নম্বর একজনই পেয়েছে। মুর্শিদাবাদের এক মুসলিম কন্যা।” সংসদ সভাপতির এই মন্তব্য ঘিরে কার্যত তোলপাড় শুরু হয়। প্রশ্ন ওঠে, কেন এখন ছাত্রীর ধর্ম পরিচয় উল্লেখ করা হল।

এছাড়াও উচ্চ মাধ্যমিকের ফলবিভ্রাট নিয়ে তীব্র অশান্তি হয়েছে রাজ্যে। জেলায় জেলায় বিক্ষোভ দেখিয়েছেন পড়ুয়ারা। কোথাও রাস্তা অবরোধ, কোথাও স্কুল ভাঙচুর। যার জেরে প্রশ্ন উঠেছিল সংসদের ভূমিকা নিয়ে। ঘটনার জেরে, সংসদ সভাপতির ডাক পড়ে নবান্নে। চাপ বেড়েছিল মহুয়া দাসের উপর।

এই টানাপোড়েনের মাঝেই সংসদ সভাপতি মহুয়া দাসকে অপসারিত করা হল। জানা গিয়েছে, তাঁর জায়গায় দ্বায়িত্বভার গ্রহণ করছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য। আগামী চারবছর ওই পদে বহাল থাকবেন তিনি।

অন্যদিকে সংবাদমাধ্যমে মহুয়া দাস জানিয়েছেন, উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষা সংসদের সভাপতি পদে তিনি এতদিন ছিলেন। তার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পরও অতিরিক্ত দু’বছর তিনি এই পদে নিয়োগ থাকেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে বাকিদের সাথে তার বয়সের সামঞ্জস্য বজায় রাখতেই এরকম সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে